মেয়েদের অন্তর্বাস কেনা একটি সেনসিটিভ ইস্যু। বহু মেয়েই দোকানে গিয়ে দেখে শুনে নিজের জন্য অন্তর্বাস কিনতে লজ্জা পায়, সংকোচবোধ করে। অনেক দোকানদারও সেই সংকোচের সুযোগ নেয়। এই সংকট দূর করতেই তিন বন্ধুর পথচলা  গোপনজিনিস ডট কম  নামক ওয়েবসাইটের। আশ্চর্যের বিষয় যে দেশের একাংশ ছেলেরা মেয়েদের রাস্তায় নোংরা খিস্তি ছুড়ে মারে, তাদের দেখলে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে ,সেই দেশেরই তিন তরুণ কাজ করে যাচ্ছে মেয়েদের গোপন পোশাক নিয়ে, মেয়েদের রক্ষা করে যাচ্ছে দৈনন্দিন লজ্জা আর সংকোচ থেকে।

এই তিনবন্ধুর পক্ষ থেকে গোপনজিনিষ ডট কমের প্রধান আবদুল্লাহ আল ইমরান ভাইয়ের সঙ্গে আড্ডা ফেমিনিজমবাংলা র । নতুন বছরে এই তিন তরুণের অসাধারণ কাজকে সম্মান জানিয়ে ফেমিনিজমবাংলার পক্ষ থেকে তাদের অশেষ ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা।

ফেসবুক পেইজঃ https://www.facebook.com/goponjinish/

গোপনজিনিষ ডট কমের শুরুর গল্প ?

আমাদের মূল লক্ষ্যই ছিল ফিমেল বেসড প্রোডাক্ট পৌঁছে দেওয়া। মেয়েরা এইসব পোশাক বাজারে কিনতে লজ্জা পায়, বিক্রেতা পুরুষ বলে ঠিকমত কমিউনিকেট করতে পারে না । এইসব চিন্তা করেই গোপনজিনিষের শুরু। এখানে প্রচণ্ড ভাবে প্রাইভেসি মেইনটেইন করা হয়।

কজন মিলে শুরু ?

আমরা তিনজন উদ্যোক্তা। আমাদের মাদার কোম্পানি হচ্ছে Nascenia Ltd। এটি একটি সফটওয়্যার কোম্পানি। এটারই একটা উইংস হচ্ছে গোপনজিনিষ ডট কম। আমরা তিনজনই পুরুষ। কিন্তু ফিমেল বেসড প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করার কথা চিন্তা করেছি। আমি আবদুল্লাহ আল ইমরান, গোপনজিনিষের প্রধানে আছি।

g1
যাত্রা শুরু?

২০১৩ সালে।

প্রথমদিকে রেস্পন্স কেমন?

অবিশ্বাস্য এই যে আমরা নেগেটিভ রেস্পন্স পাই নি। খুবই পজিটিভ রেস্পন্স পেয়েছি। খুব চিন্তা ছিল, রেস্পন্স যদি স্লো হয়, সহজে একসেপ্ট যদি না করে মানুষ, শেয়ার যদি না হয়! কিন্তু আমাদের প্রথম থেকেই কাস্টমারদের সাড়া ছিল বিশাল। আমাদের আশার মাত্রা ছাড়িয়ে দিয়েছে।

শুধুই কি মেয়েদের প্রোডাক্ট পাওয়া যায় ?

৪০% ফিমেল বেসড প্রোডাক্ট। ফিমেল এবং মেল বেসড প্রোডাক্টের অনুপাত করতে বললে দাঁড়াবে ৭:৩।

আচ্ছা প্রোডাক্ট কেনার ব্যাপারে কি মেয়েরাই মেয়েদের সাথে কথা বলে ?

দেখুন, আমাদের কাস্টমার কেয়ারে মেইল , ফিমেল, দুজনই আছেন। মেয়েরা ফোন দিলে আমাদের ফিমেইল কাস্টমাররাই ডিল করেন। মোদ্দা কথা, নারী কাস্টমাররা নিশ্চিন্তে, স্বস্তিতে এখান থেকে প্রোডাক্ট কিনতে পারে।

g2
বাস্তবে আমরা যখন কিনি, অনেক যাচাই বাচাই করে কিনে , বিশেষ করে সাইজ !

প্রোডাক্ট ওয়েবসাইটে আপলোড হয় সাইজ উল্লেখ করে। মেয়েরা একুরেট সাইজ যেটা বলে, সেটাই দেবার ব্যবস্থা করা হয়। তবে এরপরেও সাইজ রিলেটেড প্রব্লেম থাকলে, এক্সচেঞ্জ করার জায়গা থাকে।

পরিবারের সাপোর্ট কেমন ?

আসলে মা , বাবা, ভাইবোন, স্ত্রীর সাপোর্ট না থাকলে এই কাজ করে যাওয়া সম্ভব হত না। আমাদের মা বোনরা, যেন অন্তর্বাস কিনতে গিয়ে সমস্যা ফেস না করে সেইজন্যই আমাদের নিরন্তর এই প্রচেষ্টা।

আচ্ছা ফেসবুক পেইজে খারাপ কমেন্ট এলে?
পেইজ থেকে সোজা ব্যান করে দেই। ফিমেল বেসড প্রোডাক্ট ছাড়ছি, প্রাইভেসি দেবার জায়গা যেহেতু নেই একটা জিনিষ মাথায় রাখি, কোন আনইথিক্যাল প্রোডাক্ট দেই না, বাজে পাবলিসিটি করি না, উইথআউট পারমিশন মডেলের ছবি দেই না ।

তবুও চেষ্টা করি, ন্যুডিটি পিক এভয়েড করার। যতটুকু প্রোডাক্টের জন্য দিতে হয়, ততটুকুই।

কেমন ডেলিভারি চার্জ আপনাদের ?

অল ওভার বাংলাদেশ মাত্র ৩৫ টাকা।

আপনাদের একটিভিটি ভীষণ ভাল

হ্যাঁ আপনিও দেখেছেন, নক করার পাঁচ মিনিটের মধ্যেই আমরা রেসপন্স দেই।

g3
ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ?

দেশের একদম প্রথম দিকের সাইট এটি। এ বিষয়ক দেশীয় কোম্পানির সাইট ছিলই না তখন। স্টাফের পরিমাণ বাড়ছে, অর্ডার বাড়ছে, ধরে রাখতে চাই।

g4
তরুণ উদ্যোক্তাদের উদ্দেশ্যে

তরুণদের উদ্যোক্তা হবার জন্য মোস্ট ওয়েলকাম। পুঁজি কিছু রাখতেই হবে। তবে সবচেয়ে বেশী যেটা দরকার ধৈর্য রাখা। প্রথম দিকে আউটপুট আশানুরূপ হবে না, কিন্তু তখন ফ্রাস্ট্রেট হলে চলবে না একদম। টার্গেট কাস্টমার পেতে অনেক অনেক ধৈর্যের প্রয়োজন।

Advertisements